চোখের সাজ

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০১৭, ১৬:১৩

অনলাইন ডেস্ক

সাজের ক্ষেত্রে চোখের সাজের গুরুত্ব নারীদের কাছে সবচেয়ে বেশি। চোখের সাজে এখন ব্যবহার করা হচ্ছে নানারকম প্রসাধনী। চোখের মেকআপ শুরু করার আগে চোখ ভালো করে ধুয়ে নেবেন। চোখের ওপরে-নিচে ভালো করে ফাউন্ডেশন বোল্ড করে নিতে হবে। চোখের নিচে কালি থাকলে কনসিলার লাগিয়ে নিন। খেয়াল রাখুন তা যেন ত্বকের রঙের সাথে মিশে যায়। এরপর শ্যাডো দিয়ে চোখের বেইস তৈরি করতে হবে। চোখের পাতার নিচের ভাগ ভালো করে ব্লেন্ড করতে হবে। মনে রাখতে হবে ভালো করে ব্লেন্ড না হলে চোখের সাজ পরিপূর্ণ হবে না, এটি চোখের সাজের প্রধান বিষয়। চোখ টানাটানা দেখাতে গাঢ় শেডের শ্যাডো চোখের কোণে লাগান, ভি শেপ করে লাগিয়ে ভালো করে বোল্ড করে নিন। এরপর হালকা প্যাস্টেল শেডের কালার ব্যবহার করুন চোখের বাকি পাতাজুড়ে। ভ্রƒর নিচের উঁচুমতো জায়গাটা হাইলাইট করুন সিলভার বা গোল্ডেন টাইপের শেড দিয়ে। এতে চোখটা আকর্ষণীয় লাগবে।

আইলাইনার
চোখের আকৃতি ছোট হলে পুরো চোখে আইলাইনার ব্যবহার করা যাবে না। বিশেষ করে ভেতরের কোণ খালি রাখতে হবে। চোখের বাইরের কোণ আইলাইনারে টেনে লম্বা আকৃতি দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে ওপরের পাতায় মোটা করে লাইনার টানুন। নিচের পাতায় ভেতরের দিকে মাঝ বরাবর এসে আইলাইনারের দাগ থেমে যাবে, এতে চোখ অনেকটা বড় দেখায়। মাশকারা ও আইলাইনার লাগানোর সময় খেয়াল রাখুন একটা পাপড়ির সাথে আরেকটা যেন জড়িয়ে না যায়। দুই চোখের মধ্যে দূরত্ব কম হলে  নাকের কাছাকাছি চোখের ভেতর দিক থেকে বাইরের দিকে হালকা রঙের শ্যাডো লাগালে চোখ দুটি বিস্তৃত দেখাবে। আর যদি চোখের দূরত্ব বেশি হয়, তা হলে রং মিশিয়ে চোখের ভেতরের দিকের কোণায় লাগান। চোখের পাতা ঘেঁষে সরু করে আইলাইনার দিন।

আইশ্যাডো
চোখের নিচের পাতার ভেতরের কোণে হালকা করে সাদা কাজল দিতে পারেন। এভাবে আইশেড দিলে চোখ অনেকটা খোলা ও বড় দেখায়। এ ছাড়াও চোখের ভেতরের কোণে সাদা এবং হালকা রঙের আইশেড দিলে চোখের আকার বড় হয়।

পাপড়ি
পাপড়ি কার্ল করে নিলে চোখের আকার বেশ অনেকটাই বড় দেখায়। সেজন্য আইল্যাশ কার্লার গরম করে চোখের পাপড়ি কার্ল করে নিতে পারেন। কার্ল করার পর চোখে ভালো করে মাশকারা ব্যবহার করুন।

হাইলাইট
সুন্দর সাজে চোখের আকৃতি বড় দেখানোর সহজ উপায় হচ্ছে হাইলাইটার পেন্সিল ব্যবহার করা। চোখের নিচে, ভ্রুর উঁচু স্থানের হাড়ের ওপর এবং চোখের ভেতরের কোণ থেকে চোখের পাতার অর্ধেকটা অংশজুড়ে ভালো করে হাইলাইটার দিতে হবে। হাইলাইটার লাগিয়ে একটি ব্রাশের মাধ্যমে ভালো করে চামড়ার সাথে মিশিয়ে দিন। এতে চোখের আকৃতিতে পরিবর্তন আসবে।

কাজল
চোখের আকৃতি বড় এবং সুন্দর দেখাতে কাজল ব্যবহার করতে পারেন। চোখের ভেতরের কোণে চিকন করে বাইরের কোণে মোটা দাগে একটু টানা দাগ দিতে হবে। চোখের কোণে ওপর নিচের কাজলের সংযোগ ঘটাতে একটু মোটা করে আঁখি টানতে পারেন। কাজলের গাঢ় কালোভাব আপনার চোখকে আকর্ষণীয় করবে। চোখ যদি বড় দেখাতে চান লাইনার দেয়ার সময় তা একটু টেনে নিয়ে আসুন চোখের বাইরে পর্যন্ত। চোখের নিচে ভেতরের দিকে কাজল দেবেন না, এতে চোখ আরও ছোট দেখাবে। এবার কাজলের ওপর পছন্দের আইশ্যাডো লাগিয়ে নিন। কালোকে ধরে রাখতে কালো রঙের আইশ্যাডো, কালোতে কিছুটা নিলচে ভাব আনতে নিল রঙের আইশ্যাডো ব্যবহার করতে পারেন। এতে কাজল সঠিক আকৃতিতে টিকে থাকবে দীর্ঘক্ষণ। অনেক ঘামেও কাজল নষ্ট হবে না। তাই চোখ সাজাতে পারেন নিজের ইচ্ছামতো।

বাংলা বিচিত্রা/ মানিক সরকার/ হামিদ মোহাম্মদ জসিম

পুরনো সংখ্যা
  • ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

  • ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

  • ২৯ আগস্ট ২০১৯

  • ০৮ আগস্ট ২০১৯